Current Workshop of Aachol Foundation

Workshop এ জয়েন করতে রেজিস্ট্রেশন করুন

Description

বাচ্চাদের মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে আমরা কতটুকু সচেতন?

হঠাৎ করেই বাচ্চারা মন খারাপ করে বসে থাকে। কেউ বা আবার রুম আটকে গুণ গুণ করে কান্না করে। স্কুল থেকে এসে ছেলে বা মেয়েটা মন ভার করে থাকে। কথা বলতে গিয়েও বলে না, খেই হারিয়ে ফেলে। কখনো আবার শাসন করলে তারা সেটি বুঝে উঠতে পারে না। হয়ত এটার জন্য বাবা-মায়ের সাথে আত্মিক সম্পর্ক গড়ে উঠার পরিবর্তে তৈরি হয় রাগ-ক্ষোভ।

এর ফলে সন্তানেরা স্কুল এবং কোচিংয়ের বাইরে বাকি সময়টায় মগ্ন থাকে মোবাইল কিংবা ল্যাপটপে। সারাদিন স্ক্রিনের সামনে থাকার ফলে মাইগ্রেন এর ব্যথায় কাতড়ায়, বাড়ে বিমর্ষতা। প্রায়ই ফেইসবুক বা ইন্সটাগ্রামে অন্যের ছবি দেখে নিজেকে তুলনা করতে থাকে। তাই বেশিরভাগ সময়ই হীনমন্যতায় ভুগে, বাবা মায়ের কাছে অযাচিত বায়না ধরে।

আমাদের সন্তানদের মাঝে এ সমস্যাগুলো প্রায়শই লক্ষ্য করা যায়। প্রায় প্রতিদিনই মান অভিমানের দোলাচলে ভুগে তারা। আঁচল ফাউন্ডেশনের সমন্বয়কৃত তথ্য অনুযায়ী প্রতি মাসে অন্তত পনেরো জন শিশু শিক্ষার্থী অভিমানের কারণে নিজের জীবন বিপন্ন করে।

আমাদের বাচ্চাদের সাথে আমাদের রয়েছে মনের অমিল। কারণ আমাদের চেয়ে তাদের বেড়ে উঠার পরিবেশ ভিন্ন। তারা যেভাবে ভাবে, আমরা সেভাবে ভাবি না। তাদের মন থাকে নরম। ফলে আমাদের জন্য মেনে নেওয়া যেটা স্বাভাবিক, তারা হয়ত সেটা মানতেই পারে না।

প্রতিটা বাবা মাই চায় তার আদরের সন্তান ভালো থাকুক। অনেক ক্ষেত্রেই বাবা মায়েদের সীমাবদ্ধতা থাকার কারণে সন্তানের মনের যত্ন নেওয়া কঠিন হয়ে পড়ে।

‘আঁচল ওয়েলবিইং কর্নার’ এবং ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নাসিরুল্লাহ সাইকোথেরাপি ইউনিট’ আলফা যুগের বাচ্চাদের মনের যত্ন কীভাবে নেওয়া যায়, সে বিষয়ে একটি ওয়ার্কশপের আয়োজন করেছে। এখানে শেয়ার করে হবে-

  • সন্তানরা স্কুল বা বাসার বাইরে বুলিংয়ের শিকার হলে কি করবেন?
  • শিশু কোনো ধরনের অযাচিত আবদার করলে কীভাবে সামলাবেন?
  • মোবাইল আসক্তি থেকে সন্তানকে কীভাবে রক্ষা করবেন।
  • সন্তান যদি অসৎ সঙ্গ গ্রহণ করে, সেখান থেকে কীভাবে ফিরিয়ে আনবেন?
  • পরীক্ষায় আশানুরূপ ফলাফল অর্জনে ব্যর্থ হলে সন্তানকে কীভাবে মোটিভেট করবেন?
  • সন্তানের সাথে কীভাবে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক তৈরি করবেন?
  • তাদের মন খারাপ হলে মনের যত্ন কীভাবে নিবেন?
  • নিজের ব্যস্ততার মাঝেও কীভাবে কোয়ালিটি সময় দিবেন?
  • নিজের মনের যত্ন কীভাবে নিবেন?
  • অযাচিত চাপ না দিয়েও কীভাবে সন্তানকে সফল হতে ভূমিকা রাখবেন।

 

🔸 প্রশিক্ষক হিসেবে হিসেবে থাকছেন –

অধ্যাপক কামাল উদ্দিন চৌধুরি

প্রফেসর

ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি,

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

সাবিহা জাহান

ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিস্ট & পি এইচ ডি ফেলো,

নাসিরুল্লাহ সাইকোথেরাপি ইউনিট

ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

জোহরা পারভিন

ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিস্ট ,

নাসিরুল্লাহ সাইকোথেরাপি ইউনিট,

ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

 

ইভেন্টে অংশ নিতে রেজিস্ট্রেশন করে ফেলুন এখনই (আসন সীমিত)

🔸অংশগ্রহণকারীদের জন্য থাকছে –

  • কর্মশালায় অংশগ্রহণের সার্টিফিকেট 
  • বিকালের নাস্তা 
  • কলম ও নোটবুক 

 

🔸 ইভেন্ট সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্যাবলি-

সময় : বিকাল ৩:০০- ৭:০০

তারিখ: ১১ই মে, ২০২৪, শনিবার।

ভেন্যু : আর সি মজুমদার অডিটোরিয়াম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ।

রেজিস্ট্রেশন ফি সংক্রান্ত তথ্যাবলি-

*রেজিস্ট্রেশন ফি – ২০০০/-

*২৫% ডিস্কাউন্টে – ১৫০০/-

★১২ এপ্রিলের মধ্যে রেজিস্ট্রেশন করলে – ১০০০/-

🔰রেজিস্ট্রেশন ফি পেমেন্ট সংক্রান্ত তথ্যাবলি-

মোবাইল ব্যাংকিং :

বিকাশ /নগদ / রকেট: 01629360155.

ব্যাংক পেমেন্ট এর জন্য –

A/C Name : Aachol Wellbeing Corner

A/C No. 1215901036620

Bank Name: Pubali Bank

Branch- Bhola. Banglabazar Sub-branch

Address:
86/1 RK Tower, Bir Uttam C. R. Datta Road, Banglamotor, Dhaka -1205
Get Connected
Groups

© All rights reserved 2022

Developed by      Aachol Foundation